ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ৬ই অক্টোবর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ , ২১শে আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

পরকীয়ায় বাধার জেরে হাতুড়ি পেটায় স্ত্রীর মৃত্যু, স্বামী গ্রেফতার

প্রকাশ: ১৫ মার্চ, ২০২২ ৪:৪৮ : অপরাহ্ণ

পিরোজপুরের মঠবাড়িয়া উপজেলায় পরকীয়ার জেরে কাঠমিস্ত্রী স্বামীর হাতুড়ি পেটায় আয়শা বেগম (৩১) নামে এক গৃহবধূর মৃত্যু হয়েছে। এ ঘটনায় অভিযুক্ত স্বামী মামুন খানকে (৪৬) মঙ্গলবার (১৫ মার্চ) বিকেলে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

এর আগে সোমবার (১৪ মার্চ) সকালে মঠবাড়িয়া পৌর শহরের রূপনগর আবাসিক এলাকায় স্বামী তাকে হাতুড়িপেটা করেন। পরে ওই রাতেই বরিশাল শেরে-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আয়শার মৃত্যু হয়।

পুলিশ ও নিহত গৃহবধূর পরিবার সূত্রে জানা গেছে, প্রায় ১৫ বছর আগে মঠবাড়িয়া উপজেলার বকশীর ঘটিচোরা গ্রামের আয়শা বেগমের সঙ্গে ঝালকাঠি জেলার কাঁঠালিয়া উপজেলার সোনাউটা গ্রামের মামুনের বিয়ে হয়। গত ১০ বছর ধরে এ দম্পতি মঠবাড়িয়া পৌর শহরের রূপনগর মহল্লায় বসবাস করে আসছিলেন।

মামুন পেশায় একজন কাঠমিস্ত্রী। গত দুই বছর ধরে তিনি একই মহল্লার এক গৃহবধূর সঙ্গে পরকীয়ায় জড়িয়ে পড়েন। এ সম্পর্কের জেরে মামুন ও আয়শা দম্পতির মধ্যে কলহ চলে আসছিল। সোমবার সকালে এ নিয়ে স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে ঝগড়া হয়। এক পর্যায়ে মামুন হাতুড়ি দিয়ে স্ত্রীর মাথায় আঘাত করেন। চিৎকারে প্রতিবেশীরা এসে উদ্ধার করে আশয়াকে মঠবাড়িয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করান। অবস্থার অবনতি হলে তাকে বরিশাল শেরে-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন সোমবার রাতে তার মৃত্যু হয়।

এ ঘটনায় নিহত আয়শা বেগমের মা মমতাজ বেগম বাদী হয়ে মামুন খান ও তার কথিত প্রেমিকাকে আসামি করে মঠবাড়িয়া থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেছেন। মমতাজ বেগম মেয়ে হত্যার দ্রুত বিচার দাবি করে বলেন, জামাইয়ের পরকীয়া সম্পর্কে বাঁধা দিতে গিয়ে তার মেয়ে হত্যাকাণ্ডের শিকার হয়েছেন।

মঠবাড়িয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মুহম্মদ নূরুল ইসলাম বাদল বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, স্বামীর পরকীয়া সম্পর্ক নিয়ে দাম্পত্য কলহের জেরে মাথায় হাতুড়ি দিয়ে আঘাত করায় আয়শার মৃত্যু হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, নিহতের মরদেহের ময়নাতদন্ত সম্পন্ন হয়েছে। এ ঘটনায় নিহতের মা দুইজনকে আসামি করে মামলা দায়ের করেছেন। মোবাইল ট্র্যাকিংয়ের মাধ্যমে অভিযুক্ত স্বামীকে মঙ্গলবার বিকেলে গ্রেফতার করা হয়েছে।

Print Friendly and PDF
ব্রেকিং নিউজঃ