ঢাকা, মঙ্গলবার, ২৭শে সেপ্টেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ , ১২ই আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

ভান্ডারিয়ায় মুক্তিযোদ্ধাদের অনশন চার ঘন্টা পর প্রত্যাহার

প্রকাশ: ০২ আগস্ট, ২০২২ ১০:৪৫ : পূর্বাহ্ণ

ভান্ডারিয়া (পিরোজপুর) প্রতিনিধিঃ
পিরোজপুরের ভান্ডারিয়ায় গেজেটভুক্ত মুক্তিযোদ্ধাদের যাচাই বাছাই কমিটি কর্তৃক বাদ দেয়ায় উক্ত কমিটি বাতিল করে নিরপেক্ষ কমিটি গঠন করে যাচাই বছাইয়ের দবীতে বাদ পড়া মুক্তিযোদ্ধাগণ অনশন করেছেন।

 

মঙ্গরবার সকাল ১০টা থেকে স্থানীয় কেন্দ্রীয় শহিদ মিনার চত্তরে বাদপড়া ৩৭ জন মুক্তিযোদ্ধা এবং তাদের সন্তানেরা অনশন শুরু করে।

 

অনশন শুরুর চার ঘন্টা পর স্থানীয় সরকারদলীয় নেতৃবৃন্দদের নিয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার সীমারানী ধর অনশনরত স্থানে গিয়ে তাদের দাবির বিষয়ে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহনের আশ্বাস ও পানি খাইয়ে দিয়ে মুক্তিযোদ্ধাদের অনশন প্রত্যাহার করান।

 

জানাজায়, জাতীয় মুক্তিযোদ্ধা কাউন্সিল (জামুকা) ও বেসামরিক গেজেট যাচাই-বাছাই নির্দেশিকা-২০২০ অনুসারে ভান্ডারিয়ায় ১০৪ ভাতা প্রাপ্ত মুক্তিযোদ্ধাদের তথ্য যাচাই-যাছাই করে জামুকায় প্রতিবেদন জমা দেয়া মুক্তিযোদ্ধা যাচাই বাছাই কমিটি। যাচাই বাছাইতে গেজেটভুক্ত ৩৭ জন মুক্তিযোদ্ধা বাদ পরে। এর প্রেক্ষিতে গত ২০২২ সালের ফেব্রুয়ারীতে তাদের ভাতা বন্ধ হয়ে যায়।

 

বাদ পড়া মুক্তিযোদ্ধা কাজী মতিয়ার রহমান জানান, মুক্তিযোদ্ধা যাচাই-বাছাই কমিটি অর্থের বিনিময়ে প্রকৃত মুুক্তিযোদ্ধাদের বাদ দিয়ে ভুয়া লোকদের তালিকা ভুক্ত করেছে। আমাদের ভারতে ট্রেনিং এবং অস্র জমা দেয়ার সকল কাগজপত্র থাকা স্বত্ত্বেও বাদ দেয়া হয়েছে। আমরা নিরপেক্ষ কমিটি দিয়ে ওই তালিকা পুনঃ যাচাই-বাছাই করার দাবি করছি।

 

মুক্তিযোদ্ধা নুরুল হক জানান, যাচাই বাছাই কমিটি অবৈধ্য ভাবে আমাদের বাদ দিয়েছে। প্রথম যখন তিনশত টাকা ভাতা শুরু হয় তখন থেকেই আমরা ভাতা পেয়ে আসছি। ভাতা বন্ধ হওয়ায় বর্তমানে আমরা খুবই অসহয় অবস্থায় আছি।

 

এদিকে এ খাবর পেয়ে দুপুর পৌঁণে দুই টায় উপজেলা নির্বাহী অফিাসর ও পৌর প্রশাসক সীমা রানী ধর ঘটনাস্থলে এসে অনশনরত মুক্তিযোদ্ধাদের দাবি দাওয়ার কথা শোনার পরে সংশ্লিষ্ট উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষ বরাবরে লিখিত ভাবে জানানো এবং সে বিষয়ে ইউএনও সহোযোগিতা করার কথায় আশ্বাস্থ্য হওয়ার পরে পানি এবং জুস দিয়ে তাদের অনশন ভঙ্গ করানো হয়।

Print Friendly and PDF
ব্রেকিং নিউজঃ