ঢাকা, মঙ্গলবার, ২৭শে সেপ্টেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ , ১২ই আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

অবহেলায় রোগীর মৃত্যু তদন্ত রিপোর্ট আসার আগেই আবারো অবহেলায় রোগীর মৃত্যু

প্রকাশ: ০৮ মে, ২০২২ ১২:০২ : অপরাহ্ণ

পিরোজপুরের ভান্ডারিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে অবহেলায় রোগীর মৃত্যুর সারি দীর্ঘ হচ্ছে।  গত দুই সপ্তাহে শিশু সহ অবহেলায় দুইজনের মৃত্যুর অভিযোগ পাওয়া গেছে। দুটি অভিযোগ তদন্তের জন্য ৬ সদস্যের কমিটি গঠন করা হয়েছে।

 

গত ২৩ মার্চ ভান্ডারিয়া স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের অক্সিজেনের অভাবে এক নবজাতকের মৃত্যুর অভিযোগ উঠে। হাসপাতালের সেন্ট্রাল অক্সিজেন ও সিলিন্ডার থাকার পরেও অক্সিজেনের অভাবে নবজাতকের মৃত্যুর ঘটনা ঘটে। এই ঘটনা তদন্তের জন্য ভান্ডারিয়া স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের মেডিকেল অফিসার ডাঃ রেজাউল ইসলামকে প্রধান করে ছয় সদস্যে তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়। সেই তদন্তের রিপোর্ট আসার আগেই  রবিবার (৮ মে) সকাল ১০ টায় উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে আবারো ডাক্তারের অবহেলায় সজিব উকিল (১৪) নামে এক ডায়রিয়ার রোগীর মৃত্যু হয়েছে এমন অভিযোগ উঠেছে।

 

সজিব উকিল উপজেলার ২ নম্বর নদমূলা শিয়ালকাঠী ইউনিয়নের চরখালী গ্রামের মুজাম্মেল উকিলের পুত্র। সে দৃষ্টি প্রতিবন্ধি। শনিবার রাতে তিনি ডায়রিয়ায় আক্রান্ত হন। রবিবার সকাল ৫ টায় তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হলে সকাল দশটার দিকে তার মৃত্যু হয়। এ ঘটনা তদন্তের জন্য পূর্বের কমিটি বহাল রাখা হয়েছে।

 

মৃত সজিবের মা শিল্পি বেগম বলেন, ‘সজিবকে সকালে ভর্তির পরে হাসপাতাল থেকে শুধু একটি স্যালাইন দেওয়া হয়। বাকি সব ওষুধ বাইরে থেকে কিনতে হয়েছে। সকাল ৫ টা থেকে ১০ টা পর্যন্ত কোন ডাক্তার তাকে দেখতে আসেনি। স্যালাইন শেষ হলে আর কোন স্যালাইন দেয় নি। রোগী মারা যাওয়ার পরে স্যালাইন লাগানো হয়।

 

মৃত সজিবের পিতা মুজাম্মেল উকিল জানান, হাসপাতালে ভর্তি করার পরে আমার ছেলেকে কোন বেড দেয়নি। অন্য রোগী চলে যাবার পরে সেই বেডে আমরা গেলে নার্স আমাদের বেড থেকে নামিয়ে দেয়।

 

এ বিষয়ে সিনিয়র স্টাফ নার্স পার্বতী রুদ্র জানান, আমি সহ নার্স সনিয়া আক্তার ও তানিয়া আক্তার রাত্রিকালিন দায়িত্ব পালন করি। ওই রোগী মহিলা ওয়ার্ডের বেডে গেলে সেই ওয়ার্ডের মহিলারা অভিযোগ দিলে আমরা তাদের কে পুরুষ ওয়ার্ডে যেতে বলি। আমাদের ডিউটি সকাল আটটায় শেষ হয়। তখন রোগীর অবস্থা ভাল ছিল। আমরা চলে আসার পরে শুনি রোগীর মৃত্যু হয়েছে।

 

এ বিষয়ে ভান্ডারিয়া পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ কামাল হোসেন মুফতি জানান, যে অভিযোগটি আসছে সেটি তদন্তাধীন ব্যপার। এঘটনায় ৬ সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠ করেছি। তদন্তের পরে দায়িত্বে গাফলতি থাকলে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

Print Friendly and PDF
ব্রেকিং নিউজঃ